1. ahekram2006@gmail.com : ah ekram : ah ekram
  2. asadmd7195@gmail.com : JB Admin : JB Admin
  3. janatarbartabd24@gmail.com : jb editor : jb editor
আয়ু বাড়াতে চান, খাওয়ার পর কতক্ষণ হাঁটবেন জানুন! জনতার বার্তা - দৈনিক জনতার বার্তা
বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ০৩:৪৬ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ সংবাদ

আয়ু বাড়াতে চান, খাওয়ার পর কতক্ষণ হাঁটবেন জানুন! জনতার বার্তা

স্বাস্থ্য ডেস্কঃ
  • আপডেটের সময় : বুধবার, ২৫ আগস্ট, ২০২১

স্বাস্থ্য ডেস্কঃ

বাঙালির খাওয়ার পর আলসেমি লাগে, আর দুপুর বা রাতে ভাত খাওয়ার পর খানিকটা ঘুমিয়ে নেওয়া তো বাঙালির জন্মগত অধিকার। পেটে কিছু পড়লো তো শরীরও ছেড়ে দিলো। সে বাড়িতে হোক কিংবা অফিসে বা ঘুরতে গিয়ে খেয়ে দেয়ে বিছানায় পিঠ না ঠেকালেই নয়। কিন্তু এর ফলে ডেকে কি আনছেন বড়সড় বিপদ? এমন প্রশ্নের উত্তর হলো হ্যাঁ।

বিশেষজ্ঞদের মতে শুধুমাত্র মর্নিং ওয়াক বা ইভনিং ওয়াকই যথেষ্ট নয়। দুপুরে কিংবা রাতে খাওয়ার পরেও ১০ থেকে ১৫ মিনিট হাঁটা অত্যন্ত প্রয়োজন।প্রথম দিনই যে ১০-১৫ মিনিট বা ২০ মিনিট হাঁটবেন এমনটা নয়, শুরুতে ৫-৬ মিনিট দিয়ে শুরু করুন। এছাড়াও খাওয়ার পরে খুব জোরে জোরে হাঁটবেন না, এতে হিতের বিপরীত হবে। আস্তে ধীরে রিল্যাক্স করে হাঁটলেই শরীর থাকবে ঝরঝরে রোগ মুক্ত। বাড়বে আয়ু। জেনে নিন খাওয়ার পর হাঁটা কেন জরুরি-

১. খাওয়ার পর হাঁটাচলার অভ্যাস আপনার দীর্ঘদিনের হজম সমস্যা দূর করতে পারে। এছাড়াও হজম ক্ষমতা বাড়ে খাওয়ার পর হাঁটলে।

২. খাওয়ার পরেই বিশ্রাম বা বিছানায় গা এলিয়ে দিলে শরীরে বাড়তি মেদ জমবে, এতে কোনো সন্দে নেই। যদি খাওয়ার পর অন্তত ১০ মিরনট হাঁটাচলা করতে পারেন, তাহলে এই সমস্যা দূর হবে নিমিষেই।

৩. ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য এই খাওয়ার পর নির্দিষ্ট সময় হাঁটা খুবই উপকারী। কারণ বিশেষজ্ঞদের মতে খাওয়ার থেকে উৎপন্ন শর্করা কিছুক্ষন হাঁটাচলা করে নিলে অনেকটা কমে যায়। যা রক্তে সুগারের মাত্ৰা নিয়ন্ত্রণে রাখে।

৪.শরীরের অতিরিক্ত ক্যালরি, কার্বোহাইড্রেট বার্ন করতে চান, যদি উত্তর হ্যাঁ হয়, তাহলে হাঁটার কোনো বিকল্প নেই। এতে করে পেটে বাড়তি মেদ জমে না। ভুঁড়ি কমে। শরীর ফিট থাকে।

৫. এছাড়াও রাতে খাওয়ার পর হাঁটার অভ্যেস শরীরের যাবতীয় চিন্তা, অবসাদ দূর করে, রক্ত সঞ্চালন ক্ষমতা বাড়ায়, মানসিক চাপ কমায়। যার ফলে নিশ্চিন্তে ও আরামে ঘুম হয়।

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© ২০২০ সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত | দৈনিক জনতার বার্তা বিডি পরিবার
কারিগরি সহায়তায় রাফিউল ইসলাম