1. ahekram2006@gmail.com : ah ekram : ah ekram
  2. asadmd7195@gmail.com : JB Admin : JB Admin
  3. janatarbartabd@gmail.com : jb editor : jb editor
উখিয়া রাজাপালং ইউনিয়নে মুজিব বর্ষের গৃহ নির্মানের জায়গা পরিদর্শন করেন ইউএনও। - দৈনিক জনতার বার্তা
সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ০৮:৪৫ পূর্বাহ্ন

উখিয়া রাজাপালং ইউনিয়নে মুজিব বর্ষের গৃহ নির্মানের জায়গা পরিদর্শন করেন ইউএনও।

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেটের সময় : সোমবার, ২১ ফেব্রুয়ারী, ২০২২

কাজল আইচ, উখিয়া কক্সবাজার:

উখিয়া শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামের নির্ধারিত জায়গার পাশাপাশি হচ্ছে মুজিববর্ষের ঘর।
পরিদর্শন শেষে চুড়ান্ত পর্যায়ে উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নিজাম উদ্দিন আহমেদ মহোদয়ের নিরলস প্রচেষ্টায় মুজিববর্ষ উপলক্ষে আশ্রয়ন প্রকল্পের আওতায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার ভূমিহীন ও গৃহহীনদের গৃহ নির্মাণের জন্য জায়গা পরিদর্শন করেন উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নিজাম উদ্দিন আহমেদ। উখিয়া সহকারী কমিশনার ভূমি মো: তাজ উদ্দিন। উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ৪নং রাজাপালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী।

২১ ফেব্রুয়ারি ২০২২, সোমবার বিকাল ৩ টায় কক্সবজারের উখিয়ায় ৪নং রাজাপালং ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের পার্শ্ববর্তী টিএন্ডটি লম্বাঘোনা গ্রামে মুজিববর্ষের গৃহ নির্মাণের জন্য নির্ধারিত জমি পরিদর্শন করতে আসেন। উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নিজাম উদ্দিন আহমেদ। সহকারী কমিশনার (ভূমি) তাজ উদ্দিন, উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও রাজাপালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন। বিশিষ্ট ব্যবসায়ি কন্ট্রাকটর মুফিজ উদ্দিন ও ইঞ্জিনিয়ার সহ ও স্থানীয় লোকজন উপস্থিত ছিলেন …..

মুজিববর্ষ উপলক্ষে আশ্রয়ন প্রকল্পের আওতায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার ভূমিহীন ও গৃহহীনদের গৃহ নির্মাণের জন্য জায়গা পরিদর্শন করে ইউনএনও মহোদয় বলেন, দেশের একজন মানুষও মুজিববর্ষে গৃহহীন থাকবেনা। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়নে দেশের সকল ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান কার্যক্রম চলমান রয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় রাজাপালং ইউনিয়নের মুজিববর্ষ গৃহ নির্মানের জন্য এ জায়গাটি পরিদর্শনে এসে দেখতে পাই ঘরের জন্য এই জায়গাটি খুবেই সুন্দর হবে। আরো বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সর্বোচ্চ আবেগের জায়গা হলো আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘরগুলো। ঘরের কাজের
গুণগতমান ও টেকসইয়ের জন্য গুরুত্ব দিতে কাজে নিয়োজিতদের নির্দেশনা দেন তিনি। এবং ঘরের কাজে কোন অনিয়ম যাতে না হয় সেজন্য সবসময় কাজগুলো তদারকি করার জন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা সক্রিয় ভূমিকা রাখবে বলে জানান।

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরও খবর
© ২০২০ সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত | দৈনিক জনতার বার্তা বিডি পরিবার
কারিগরি সহায়তায় রাফিউল ইসলাম