1. ahekram2006@gmail.com : ah ekram : ah ekram
  2. asadmd7195@gmail.com : JB Admin : JB Admin
  3. janatarbartabd@gmail.com : jb editor : jb editor
কক্সবাজারের পেকুয়ায় প্রেমিকের ধর্ষণ চেষ্টায় বিষপানে প্রেমিকার আত্মহত্যা! জনতার বার্তা - দৈনিক জনতার বার্তা
বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ১০:২৩ অপরাহ্ন
সর্বশেষ সংবাদ

কক্সবাজারের পেকুয়ায় প্রেমিকের ধর্ষণ চেষ্টায় বিষপানে প্রেমিকার আত্মহত্যা! জনতার বার্তা

মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধিঃ
  • আপডেটের সময় : শনিবার, ২৪ জুলাই, ২০২১

মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধিঃ

কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলার রাজাখালীতে গভীর রাতে প্রেমিক তার সহযোগীদের নিয়ে ধর্ষণ চেষ্টা করলে অপমানে প্রেমিকা বিষপানে আত্মহত্যা করেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার (২৩ জুলাই) দিবাগত রাত ২ টায় উপজেলার রাজাখালী ইউনিয়নের হাজিরপাড়া এলাকায়।

এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে পেকুয়া থানার এসআই নাজমুল হক ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। জানা যায়, ঘটনার দিন রাতে বাঁশখালী ছনুয়া এলাকার মকসুদ আহমদের ছেলে প্রেমিক আবুল কাশেম ও তার দুই সহযোগী রাজাখালী ইউনিয়নের হাজির পাড়া এলাকার মৃত আবুল হোসেন বাদশার পুত্র আলমগীর ও নুরুল হকের পুত্র রবি আলম ওই এলাকার দিনমজুর আইয়ুব আলীর বাড়িতে আসে এবং তার মেয়ে রাজাখালী বি ইউ আই ফাজিল মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী প্রেমিকা তাবাচ্ছুম জান্নাত রেখা মনির সাথে দেখা করে।

ওই সময় প্রেমিক আবুল কাশেম ও তার সহযোগীরা তাকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ঘর থেকে বের করে দক্ষিণ হাজীপাড়ার মসজিদের পুকুরের বাসায় নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ চেষ্টা চালায়। এই সময় তার আত্মচিৎকারে লোকজন এগিয়ে আসলে ধর্ষণ চেষ্টাকারীরা পালিয়ে যায়। এবং পরে অপমান সহ্য করতে না পেরে বিষপান করে আত্মহত্যা করে মাদ্রাসা পড়ুয়া ছাত্রী তাবাচ্ছুম জন্নাত রেখামনি(১৫)।

খবর পেয়ে স্থানীয়রা উদ্ধার করে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করার পরপরই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে রেখামনি। রেখা মনির পিতা আইয়ুব আলী বলেন, ঘটনার সময় আমি বাঁশখালী পুঁইছড়ির এক আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিলাম।

খবর পেয়ে বাড়িতে এসে বড় ছেলে মোঃ রাসেল ও স্থানীয়রা জানান, আমার প্রতিবেশী মৃত আবুল হোসেন বাদশার ছেলে আলমগীর, নুরুল হকের ছেলে রবি আলম ও বাঁশখালী ছনুয়া এলাকার মকসুদ আহমদের ছেলে আবুল কাশেম মেয়েকে গভীর রাতে প্রেমের প্রলোভনে ফেলে দক্ষিণ হাজীপাড়ার মসজিদের পুকুরের বাসা নিয়ে ইচ্ছার বিরুদ্ধে অনৈতিক কাজে লিপ্ত করার চেষ্টায় ধস্তাধস্তি করে। তার আত্মচিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে উদ্ধার করার পর অপমানবোধ করে আত্মহননের দিকে ধাবিত হয়ে বিষপান করে। আমি আমার মেয়ের অকাল মৃত্যুর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছি।

স্থানীয় ইউপি সদস্য জনাব নেজামুদ্দিন নেজু জানান, বেশারাতুল উলুম মাদ্রাসার ছাত্র আবুল কাশেমের সাথে রেখামনির প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। গতরাতে হাজীপাড়ার মৃত আবুল হোসেন বাদশার পুত্র আলমগীর, নুরুল হকের পুত্র রবি আলমের সহযোগিতায় প্রেমিক আবুল কাশেম রেখামনিকে মসজিদের পুকুরের বাসায় নিয়ে যায়। সেখানে তারা ধর্ষন বা ধর্ষন চেষ্টা চালালে স্থানীয়রা দেখতে পেয়ে উদ্ধার করে রেখামনিকে বাড়িতে পৌঁছে দেয়। এরপর রাতের কোনো এক সময়ে বিষপান করে আত্মহত্যা করে বলে মেয়ের পরিবার এবং এলাকাবাসীদের কাছ থেকে জেনেছি।

এ ব্যাপারে পেকুয়া থানার ওসি (তদন্ত) কানন সরকার বলেন, তাবাচ্ছুম জান্নাত রেখামনি নামের এক কিশোরীর বিষপানে আত্মহত্যার খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরও খবর
© ২০২০ সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত | দৈনিক জনতার বার্তা বিডি পরিবার
কারিগরি সহায়তায় রাফিউল ইসলাম