1. ahekram2006@gmail.com : ah ekram : ah ekram
  2. asadmd7195@gmail.com : JB Admin : JB Admin
  3. janatarbartabd@gmail.com : jb editor : jb editor
পীরগাছা উপজেলার অন্নদানগর ইউনিয়নে বাড়ির সামনের রাস্তা বন্ধ করে দেওয়ায় কারণে ১৫দিন থেকে বের হতে পারছেন না দুটি পরিবার! - দৈনিক জনতার বার্তা
সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ০৯:১৩ পূর্বাহ্ন

পীরগাছা উপজেলার অন্নদানগর ইউনিয়নে বাড়ির সামনের রাস্তা বন্ধ করে দেওয়ায় কারণে ১৫দিন থেকে বের হতে পারছেন না দুটি পরিবার!

মোঃ রফিকুল ইসলাম লাভলু, বিভাগীয় স্টাফ রিপোর্টার রংপুরঃ
  • আপডেটের সময় : সোমবার, ২৭ ডিসেম্বর, ২০২১

মোঃ রফিকুল ইসলাম লাভলু, বিভাগীয় স্টাফ রিপোর্টার রংপুরঃ পূর্বের শত্রুতার জের ধরে এক অসহায়ের বাড়ির সামনের চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে দিলেন একদল ভূমিদস্যু। বেড়িকেট দেওয়ার কারণে প্রায় ১৫দিন থেকে বাড়ির বাইরে যেতে পাচ্ছেন না ওই ভূক্তভোগী পরিবার। ফলে জরুরী প্রয়োজনে কোথায়ও যেতে চরম ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে। একধরণের বন্দিজীবন যাপন করছেন দুই পরিবারের প্রায় ১৩জন সদস্য। ১৫দিন থেকে দুই পরিবারের বন্দিজীবনের ঘটনায় ওই এলাকায় থমথম অবস্থা বিরাজ করছে। ঘটনাটি ঘটেছে রংপুরের পীরগাছা উপজেলার অন্নদানগর ইউনিয়নের পেটভাতা গ্রামে।

জানা যায়, ওই গ্রামের মৃত তছির উদ্দিনের ছেলে নবী বকসের সাথে একই গ্রামের কাচু গাড়িয়ালের ছেলে কালাম মিয়া, জাবেদ আলীর ছেলে সাইফুল ইসলাম ও হোসেন আলীর ছেলে মহুবর রহমানের জমিজমা সংক্রান্তের জের ধরে দ্বদ্ব চলে আসছিল। এর ফলে অসহায় নবী বকসের বাড়ির যাতায়াতের রাস্তায় বেড়িকেট দিয়ে রেখেছে তারা। এ নিয়ে নবী বকস পীরগাছা থানায় কয়েক দফা অভিযোগ করলেও পীরগাছা থানা পুলিশ কোন ব্যবস্থা নেয়নি বলে তাদের দাবি।

এমনকি যে জমি নিয়ে সমস্যা সে জমি নবী বকসের পক্ষে আদালত রায় দিলেও কালাম মিয়া, সাইফুল ইসলাম ও মহুবর রহমান আদালতকে অমান্য করে নবী বকস জমি চাষ করতে গেলে তারা বাধা প্রদান করেন এবং নিজের জমি বলে দাবি করেন।

এ বিষয়ে ভূক্তভোগী নবী বকস বলেন, আমার পৈতৃক সম্পত্তি। আদালত আমার পক্ষে রায় দিয়েছে। আমি জমি চাষ করতে গেলে তারা বাধা দেন এমনকি আমার বাড়ির সামনে বাঁশের বেড়া দিয়ে রাখছে। আমরা বন্দিজীবন যাপন করছি। আমাদের হাট-বাজার, হাসপাতাল বা জরুরী কাজে বাড়ির বাহিরে যেতে পারছিনা।
অভিযুক্ত সাইফুল ইসলাম জানান, নবী বকসের সাথে আমার কোন শত্রুতা নেই। তাদের অভিযোগ সত্য নয়।

বাড়ির যাতায়াতের রাস্তায় বেড়িকেট দেওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমার রোপনকৃত সুপারি গাছ। আবাদি ফসল ক্ষতি হয় বিধায় আমি আমার জায়গায় বেড়িকেট দিয়েছি।

পীরগাছা থানা এসআই ফজলুল হক জানান, স্থানীয়ভাবে এটা সমাধান করতে হবে। নবী বকসের পক্ষে আদালত রায় দিয়েছে সত্য কিন্তু সংরক্ষণ করতে হবে নবী বকসকে।

বাড়ির যাতায়াতের রাস্তায় বেড়িকেট দেওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এটা কালামের জায়গা। তার জায়গায় সে বেড়িকেট দিলে আমাদের কিছু করার নেই।

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরও খবর
© ২০২০ সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত | দৈনিক জনতার বার্তা বিডি পরিবার
কারিগরি সহায়তায় রাফিউল ইসলাম