1. ahekram2006@gmail.com : ah ekram : ah ekram
  2. asadmd7195@gmail.com : JB Admin : JB Admin
  3. janatarbartabd@gmail.com : jb editor : jb editor
সেলিম মিয়ার চক্রবর্তী সুদের ব্যবসা ভিন্ন মেয়াদি সুদের ফাঁদে জিম্মি, অসহায় হত-দরিদ্র জনগোষ্ঠী - দৈনিক জনতার বার্তা
সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ১২:৫০ অপরাহ্ন

সেলিম মিয়ার চক্রবর্তী সুদের ব্যবসা ভিন্ন মেয়াদি সুদের ফাঁদে জিম্মি, অসহায় হত-দরিদ্র জনগোষ্ঠী

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেটের সময় : বুধবার, ২৫ মে, ২০২২

রাকিবুল ইসলাম, (নারায়ণগঞ্জ) রূপগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

সোনারগাঁও উপজেলা কাঁচপুর ইউনিয়ন সোনাপুর এলাকায় মোঃ সেলিম মিয়ার(৪৮) চক্রবর্তী সুদের ব্যবসা। ভিন্ন মেয়াদি সুদের ফাঁদে জিম্মি হয়ে পড়ছেন অসহায় হত-দরিদ্র জনগোষ্ঠী।

কাচপুর ইউনিয়ন সোনাপুর এলাকার মৃত হেদায়েত উল্লা মুন্সি (৭০) ছেলে অসাধু সুদ ব্যাবসায়ী মোঃ সেলিম মিয়া(৪৮) বনে যাচ্ছে পাহাড় সমান কালো টাকার মালিক। আর অভাব অনটের সংসারে অন্ন বস্ত্র বাসস্থানের প্রয়োজনে সুদ গ্রহীতারা হারাচ্ছে ভিটেমাটি -সহায় সম্পত্তি সহ অনেক কিছু।

জানাযায়, মানুষকে নিঃস্ব করার অন্যতম সুদের চক্রবর্তী লাভের ব্যবসা সোনারগাঁও উপজেলা কাঁচপুর ইউনিয়ন ও এর বেশির ভাগ গ্রাম গুলোতে ছড়িয়ে আছে তার সুদের ব্যবসা । অসাধু সুদ ব্যাবসায়ী মোঃ সেলিম মিয়া দৈনিক, সাপ্তাহিক ও মাসিক ভিত্তিতে সুদের ব্যাবসা চালিয়ে যাচ্ছে।

অত্র এলাকায় সুদের ব্যবসা মহামারী করনাকালীন সময়ে তার এই সুদের ব্যবসা দিগুন আকারে ধারণ করেছে। সারাদেশ করোনার কারনে ব্যবসা বাণিজ্য বন্ধ, তখনই, মোঃ সেলিম মিয়া, সুদ ব্যবসায়ী রোষানলে পড়ে অসহায় হয়ে পড়েছে সমাজের নিম্নবিত্ত ও মধ্যবিত্ত পরিবারের সাধারণ মানুষগুলো। সোনারগাও উপজেলায় চড়া সুদে হত-দরিদ্র জনগোষ্ঠীর মাঝে ভিন্ন মেয়াদে ঋন প্রদান করেছেন। এসব ব্যবসার সাথে জড়িয়ে পড়ছে সমাজের মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্ত পরিবার গুলো। বিপদ-আপদে অনেকটাই বাধ্য হয়ে সুদের উপর টাকা নিয়ে থাকেন মধ্যবিত্ত অনেক পরিবার।পরে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে সুদ ও আসল টাকা পরিশোধ করতে না পারলেই সুদ ব্যবসায়ী মোঃ সেলিম মিয়ার হাতে লাঞ্ছনার স্বীকার হতে হয়। হারাতে হয় সাহায় সম্পত্তির অনেক কিছুই। সুদ ব্যবসায়ী মোঃ সেলিম মিয়া চক্রবৃদ্ধি সুদের রোষানলে দিশেহারা হয়ে পড়েছে কাঁচপুর ইউনিয়নের অনেকে।

বিভিন্ন অসুবিধায় সুদ ব্যবসায়ী মোঃ সেলিম( ৪৮) মিয়ার নিকট চড়া সুদে টাকা নিয়ে সাদা ষ্ট্যাম্পে স্বাক্ষর বা টিপ দিয়ে টাকা নিতে হয় । আর ওই সব সাদা ষ্ট্যাম্পে সাক্ষী নেওয়া হয় সুদ ব্যবসায়ী পছন্দমত ব্যক্তিদের এবং ইচ্ছামত তারা ষ্ট্যাম্প পূরণ করে রাখেন কিংবা প্রয়োজন মত লেখার জন্য ফাঁকা রাখেন।আর বেকায়দায় পড়া ব্যক্তিদের অনেকে সুদ ব্যবসায়ী মোঃ মেলিম মিয়া চাপে বন্ধক রাখতে জমির দলিলপত্র, স্বর্ণালংকার, খালি চেকও বন্ধক রাখতে বাধ্য হচ্ছেন সুদ ব্যাবসায়ী সেলিমের কাছে। একদিকে যেমন সুদ ব্যবসায়ী মোঃ সেলিম মিয়া কোটি কোটি টাকা ও সম্পদের পাহাড় গড়ছেন অন্যদিকে সাধারণ ও মধ্যবিত্ত আয়ের মানুষ দিন দিন গরিব ও ভূমিহীনে পরিণত হচ্ছে।সৌথ ব্যবসায়ী

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুককিছু ভুক্তভোগী বলেন, মোঃ সেলিম মিয়ার (৪৮) সুদের ব্যবসা দিনের পর দিন বেড়েই চলছে। সুদের টাকা পরিশোধ করতে না পারলে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখিয়ে খালি চেকে তার ইচ্ছামত টাকা বসিয়ে চেকটি ডিজঅনার করে মামলা দিয়ে আসলের থেকে ২০-৩০ গুন বেশি সুদের টাকা আদায় করেন। খোঁজ নিয়ে জানা যায়। মোঃ সেলিম মিয়া সোনারগাঁও উপজেলা কাঁচপুর ইউনিয়ন সোনাপুর এলাকার মৃত হেদায়েত উল্লা মুন্সি ছেলে অসাধু সুদ ব্যাবসায়ী মোঃ সেলিম মিয়া, সুদের ব্যবসা করে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে বিত্তহীন থেকে হয়েছেন বিতবিত্তবান।

মানুষকে ভয় ভিতি দেখিয়ে হুমকি দমকি দিয়ে বিভিন্ন কৌশলে চেক নিয়ে ব্লাক মেইল করে আসতেছে। অনেক ভুক্ত ভোগীর জাগা সম্পদ নিয়ে গেছে। সমাজের এই ক্ষতিকর সমাজ-বিরোধী অবৈধ সুদ ব্যবসা উচ্ছেদে সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষ ও প্রশাসন এ ব্যাপারে জরুরী পদক্ষেপ নিবেন এই দাবী সোনারগাঁয়ে উপজেলার সচেতন মহলের।

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরও খবর
© ২০২০ সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত | দৈনিক জনতার বার্তা বিডি পরিবার
কারিগরি সহায়তায় রাফিউল ইসলাম